ভূমি সংস্কার বোর্ড গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৮ জুন ২০১৫

ইনডেনচারের বিবরণ

পূর্বে উল্লেখ করা হয়েছে ঢাকা প্রথম সাব জজ আদালতে দায়েরকৃত ১২ এবং ১৬ নম্বর মোকদ্দমায় ঋণের দায়ে নবাব স্যার সলিমুল্লাহর সম্পত্তি ঋণ দাতাদের অনুকূলে ডিক্রি হয়ে যায়। ইংরেজদের পরম হিতৈষী নবাব স্যার সলিমুল্লাহকে  এহেন দুর্দিনে সাহায্য করার জন্য ইংরেজ সরকার এগিয়ে আসেন। ভারত সরকারের সেক্রেটারি গ্রহীত ঋণের টাকা পরিশোধ পূর্বক ঋণ গ্রহীতা (নবাব স্যার সলিমুল্লাহ) ও ডিক্রি হোল্ডারদের সম্মতিতে একটি রেজিস্ট্রি দলিল সম্পাদনের মাধ্যমে ডিক্রিপ্রাপ্ত সম্পত্তি অধিকারে নেন। পরবর্তীতে নবাব সলিমুল্লাহর দরখাস্তের পরিপ্রেক্ষিতে কোর্ট অব ওয়ার্ডস আইন ১৮৭৯ এর ৬(ঙ) ধারা মোতাবেক নবাব স্যার সলিমুল্লাহকে এস্টেট পরিচালনার অযোগ্য ঘোষণা পূর্বক ঢাকা নবাব এস্টেটের সম্পূর্ণ অংশের পরিচালনার ভার কোর্ট অব ওয়ার্ডসের নিয়ন্ত্রণাধীনে নিয়ে নেয়া হয়। নবাব এস্টেট কোর্ট অব ওয়ার্ডসের নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য তিন পক্ষের মধ্যে একটি Indenture বা বন্ধকি দলিল সম্পাদিত হয়েছিল- যার নম্বর ৪১৪২ এবং তারিখ ০৬ আগস্ট, ১৯০৮ । ইনডেনচারটি ৬-৮-১৯০৮ তারিখে সম্পাদিত হলেও দেখা যায় ঢাকা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের স্পেশাল সাব রেজিস্ট্রার উহা ০৫-১২-১৯০৮ তারিখে রেজিস্ট্রি করেছেন।

ইনডেনচারটি পর্যালোচনা করলে দেখা যায় এর মধ্যে দুটি অংশ রয়েছে। প্রথম অংশে ইনডেনচারটি কোন তারিখে, কে কে এবং কেন সম্পাদন করলেন তা উল্লেখা পূর্বক নয়টি শর্ত যুক্ত ক্লজ রয়েছে। এ অংশটি ইংরেজিতে লিপিবদ্ধ। অপর অংশে তিনটি তফসিল যা বাংলায় লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। ’ক’ তফসিলের শুরুতে ’ক’ এবং ’গ’ তফসিলে বর্ণিত প্রত্যেক সম্পত্তির যে অংশ লিখিত হয়েছে তার ষোল আনা রকমের দুই আনা ষোল গন্ডা (১৭.৫%) অংশের মালিক শ্রীযুক্ত অনারেবল নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুর রেহান আবদ্ধ করলেন মর্মে উল্লেখ করা হয়েছে। মূল ইনডেনচারটি জেলা রেজিস্ট্রার ঢাকা  এর দপ্তরে সংরক্ষিত রয়েছে। তবে ভূমি সংস্কার বোর্ডের কোর্ট অব ওয়ার্ডস ঢাকা নবাব এস্টেটে উক্ত ইনডেনচারের একটি প্রত্যায়িত অনুলিপি বা সার্টিফাইড কপি সংরক্ষিত আছে। উক্ত সার্টিফাইড কপিটি সাকুল্যে ৪৬৬ পৃষ্ঠার। সার্টিফাইড কপিটি নিবন্ধক (রেজিস্ট্রার) ঢাকার দপ্তর হতে ৫-১১-১৯৬৮ সালে প্রস্ত্ততকৃত এবং ট্রুকপি হিসেবে ঢাকা রেজিস্ট্রারের পক্ষে ১২-১১-১৯৬৮ তারিখে স্বাক্ষরিত।

’ক’ তফসিলে নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুরের ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত স্থাবর সম্পত্তি অর্থাৎ জমা জমির বিবরণ রয়েছে। এই অংশে মোট ১৯৪৭ দফায় নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুরের বিভিন্ন জেলা, পরগণা এবং তৌজিতে যে সব জমাজমি রয়েছে তার বর্ণনা দেয়া হয়েছে। প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ্য যে, ঢাকা জেলার সি.এস জরিপ ১৯১৬ সালে সম্পন্ন হয়েছে বিধায় তফসিল বর্ণিত জমির মৌজা, জে.এল নং দাগ বা খতিয়ান নম্বর উল্লেখ করা হয়নি। ফলে বর্তমান প্রেক্ষাপটে পরগণা, তৌজি ও চৌহদ্দি ধরে প্রকৃত জমির পরিমাণ বের করা অসম্ভব ব্যাপার।

’খ’ তফসিলে বর্ণিত চারটি দফায় যে জমাজমির বিবরণ দেয়া হয়েছে তার ষোল আনা অংশের মালিক নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুর বিধায় উক্ত সমুদয় সম্পত্তি রেহানাবদ্ধ।

’গ’ তফসিলে ১০৯টি দফায় জুয়েলারি এবং অন্যান্য অস্থাবর সম্পত্তির বিবরণ দেয়া হয়েছে। ’গ’ তফসিলে ১০৯ দফায় ১০, ০৯,৮৩৫/-টাকা এবং তার নিচে ২০,০০০/- টাকা মূল্যের Gold Bains এর উল্লেখ আছে। এই সম্পত্তির দুই আনা ষোল গন্ডা অংশে নবাব বাহাদুর ১,৮১,০৯৬/- টাকা ১৩ পয়সার মালিক-যা  ইনডেনচার বলে রেহানাবদ্ধ।

গ.১. ইনডেনচারের বর্ণিত শর্তাবলি

শুরুতে ইনডেনচার সম্পাদনের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করা হয়েছে। এখানে বলা হয়েছে যে, ঢাকার কুমারটুলি নিবাসী লোকান্তরিত নবাব স্যার আহসান উল্লাহ বাহাদুর কে.সি.আই.ই এর পুত্র জমিদার নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুর সি.এস.আই এর দরখস্ত অনুবলে তাকে কোর্ট অব ওয়ার্ডস আইন ১৮৭৯ এর ৬(ই) ধারা, সংশোধিত ১৮৯২ সালের ১০নং বঙ্গীয় আইন এবং ১৯০৭ সালের পূর্ববঙ্গ এবং আসামের ৩নং আইন মোতাবেক অযোগ্য ভূম্যধিকারী ঘোষণা করা হয়েছে। পূর্ববঙ্গ ও আসাম সরকারের পত্র নং ৪২৮, তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ১৯০৭ এর মাধ্যমে উক্ত ঘোষাণা জারি করা হয়েছে এবং জনস্বার্থে অযোগ্য ভূম্যধিকারীর এস্টেটটি স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তিসহ কোর্ট অব ওয়ার্ডসের ব্যবস্থাধীনে আনা হয়েছে। এজন্য ৩নং ক্লজে বর্ণিত শর্তানুসারে সুদ প্রদান ও ঋণ পরিশোধ সাপেক্ষে ১৪,০০,০০০/- (চৌদ্দ লক্ষ) রুপি কোর্ট অব ওয়ার্ডস অগ্রিম প্রদান করবে যা ১৯০৮ সালের ৩ আগস্ট তারিখের ১৩৩ নং পত্রে মঞ্জুর করে ঢাকার বিভাগীয় কমিশনারকে ইনডেনচার সম্পাদনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ইনডেনচারটি ১৯০৮ সালের ৬ আগস্ট নিম্নোক্ত পক্ষত্রয় কর্তৃক সম্পাদিত হয়। প্রথম পক্ষ কোর্ট অব ওয়ার্ডসের পক্ষে পূর্ববঙ্গ ও আসাম সরকারের প্রতিনিধি ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, দ্বিতীয় পক্ষ অযোগ্য ভূম্যধিকারী ঘোষিত নাবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুর এবং তৃতীয় পক্ষ ভারত সরকারের সেক্রেটারির পক্ষে ঢাকার কালেক্টর। ইনডেনচারটি প্রথম পক্ষ হিসেবে ঢাকার তদানীন্তন বিভাগীয় কমিশনার জনাব আর. নাথান, আই.সি.এস, দ্বিতীয় পক্ষ হিসেবে নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুরের পক্ষে তার অ্যাটর্ণি জনাব জে. হোডিং এবং তৃতীয় পক্ষ হিসেবে ঢাকার তৎকালীন কালেক্টর জনাব এইচ.এল.সাল কেল্ড স্বাক্ষর করেন। এখানে প্রথম এবং দ্বিতীয় পক্ষকে মর্টগেজর বা মর্টগেজ দাতা এবং তৃতীয় পক্ষকে মর্টগেজি বা মর্টগেজ গ্রহীতা হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

ইনডেনচারটি হস্ত লিখিত। যে সার্টিফাইড কপিটি আমাদের হস্তগত হয়েছে অনেক ক্ষেত্রে তা পাঠ অযোগ্য এবং অনেক জায়গায় যে শব্দ লিপি করা হয়েছে তা ইংরেজি অভিধানে খুঁজে পাওয়া যায় না। তথাপি শর্তাবলির যথসম্ভব পাঠোদ্ধার করে মুদ্রি্ত করা হয়েছে। যেসব শব্দের পাঠোদ্ধার করা যায়নি তা যেভাবে লিপি করা হয়েছে ঠিক সেভাবেই মুদ্রণ করা হলো। যদি কোন পাঠক বা গবেষক তার যথাশব্দ চয়ন করতে পারেন, সে উদ্দেশ্য নিয়েই প্রচেষ্টাটি নেয়া হয়েছে। ইনডেনচারের শর্তাবলি বাংলায় সংক্ষেপে নিম্নরূপঃ

এক নম্বর ক্লজে বলা হয়েছে কোর্ট অব ওয়ার্ডস মর্টগেজে বর্ণিত সম্পত্তির খাজনা আদায়, খাজনা আদায়ের আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ, ভূ-সম্পত্তির উন্নয়ন করতে পারবেন। তিন নম্বর ক্লজে বর্ণিত শর্তানুসারে গৃহীত ঋণের সুদ ও আসল পরিশোধের বিষয়ে তৃতীয় পক্ষ সন্তোষ লাভ করলে মর্টগেজে আবদ্ধ সম্পত্তি অবমুক্ত করবেন।

ইনডেনচারে ২নং ক্লজে বলা হয়েছে ঢাকার দ্বিতীয় সাব জজ আদালতের ১৯০৭ সালের ১২ এবং ১৬ নম্বর মোকদ্দমায় ঋণদাতা শ্রীনাথ রায় এবং শ্রীমথ রায় এর অনুকূলে ঋণের দায়ে ঋণ গ্রহীতা নবাব সলিমুল্লাহ বাহাদুরের বিরুদ্ধে যে ডিক্রি জারি হয়েছিল তা উভয় পক্ষের সম্মতি ভারত সরকারের সেক্রেটারি এর পক্ষে কোর্ট অব ওয়ার্ডস পরিশোধ করে দেয়ায় ডিক্রি গ্রহীতাদের স্থলে Secretary of the State মর্টগেজ গ্রহীতা হিসাবে পরিগণিত হয়েছে।

ইনডেনচারের ৩নং ক্লজে বলা হয়েছে মর্টগেজ দাতা মর্টগেজ সম্পাদনের তারিখ হতে ৩০ বছর মেয়াদে গৃহীত ঋণের ১৪ লক্ষ রুপি পরিশোধ করবেন। প্রথম দুই বছর শতকরা ৩.৫ ভাগ হরে সরল সুদে এবং পরবর্তীতে শতকরা ৩ ভাগ সরল সুদে অর্ধবাষিক কিস্তিতে সুদের টাকা আনুপাতিক আসলসহ পরিশোধ করতে হবে। সমুদয় সুদ এবং আসলের টাকা মর্টগেজ দাতা তৃতীয় পক্ষ অর্থাৎ মর্টগেজ গ্রহীতাকে সন্তোষজনকভাবে পরিশোধ করবেন। মর্টগেজ দাতা এই মর্মে সম্মত যে ভবিষ্যতে ওয়ার্ড বা তার উত্তরসূরি দেনা পরিশোধে অবহেলা করলে মর্টগেজ গ্রহীতা বা কোর্ট অব ওয়ার্ডস সুদের হার ৩.৫%এ বর্ধিত করতে পারবেন।

ইনডেনচারের ৪নং ক্লজে মর্টগেজ দাতা এই মর্মে আরও সম্মত হয়ে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন যে, মর্টগেজ দাতা ভারত সরকারের ২২-০৪-১৯০৭ সালের ৬৮৬ নম্বর পত্রের শর্ত সম্পর্কে সম্যক অবগত আছেন- যা তাকে স্থানীয় পূর্ববঙ্গ এবং আসাম সরকারের মাধ্যমে জানানো হয়েছে; তিনি সেসব শর্তাবলি মেনে চলবেন।

ইনডেনচারের ৫নং ক্লজে বলা হয়েছে এই দলিলের তফসিলে যেসব স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পিত্তির বিবরণ দেয়া হয়েছে, তা মর্টগেজ গ্রহীতার নিকট জামানত স্বরূপ তার দায়িত্বে থাকবে।

ইনডেনচারের ৬নং ক্লজে বলা হয়েছে ডিক্রি ক্রয় করতে আনুসঙ্গিক বাবদ যে ৩ লক্ষ ১১ হাজার ৫শত রুপি খচর হয়েছে তা ১৪ লক্ষ রুপির অংশ হিসেবে পরিগণিত হবে এবং মর্টগেজ দাতা তার জামানত প্রদান করবে।

ইনডেনচারের ৭নং ক্লজে বলা হয়েছে মর্টগেজ দাতা আরো প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন যে, তফসিল বর্ণিত সম্পিত্তিতে যদি কোন ভুল বা অসত্য তথ্য থেকে থাকে, তা মর্টগেজ গ্রহীতার সংশোধন বা পরিশোধন করার ক্ষমতা থাকবে।

ইনডেনচারের ৮নং ক্লজের বর্ণনা অনুসারে দ্বিতীয় পক্ষের ওয়ার্ড বা উত্তরাধিকারী, কর্তব্য সম্পদানকারী, প্রশাসক অথবা ক্ষমতা প্রাপ্ত কোন ব্যক্তি কখনো এই সম্পত্তি বিক্রয় করতে পারবে না (অবমুক্ত না করা পর্যন্ত)।

ইনডেনচারের ৯নং ক্লজে বলা হয়েছে মর্টগেজ দাতা এই মর্মে সম্মত হয়ে ঘোষণা দিচ্ছেন যে, ওয়ার্ডস অথবা তার উত্তরাধিকারী বা তার প্রশাসক ঋণের সমুদয় টাকা পরিশোধ না করা পর্যন্ত কোর্ট অব ওয়ার্ডসের তত্ত্বাবধানে থাকা তফসিল বর্ণিত সম্পত্তি বা সম্পত্তির অংশ বিশেষ ফিরিয়ে নিতে পারবেন না। (পাঠোদ্ধারের ব্যর্থতার কারণে ইনডেনচারের শর্তাবলির হুবহু অনুবাদ করা সম্ভব হলো না। এ ক্ষেত্রে ভাবানুবাদ করা হয়েছে।)

গ.২. ইনডেনচারের শর্তাবলি ইংরেজিতে (হুবহু)

INDENTURE NO-4142/1908

Date-05-12-1908

This INDENTURE made and executed on the 6th day of August 1908 between the Court of wards of Eastern Bengal Assam represented by the Commissioner of the Dacca Divission here in after described as the said Court of wards of the first part and Nawab Salimullah Bahadur CSI son of the late Nawab Sir Ahsanullah Bahadur KCIE by caste Muslman by profession Gaminder ressident of Kumartali in the town of Dacca and who has been duly declared disqualified proprietor Section 6 clause (e) of the Court of wards Act, Bengal act ix of 1879 as amended by Bengal act x of 1892 and E.B & A act iii of 1907 and is here in after described as the said wards of the second part the said two parts being here in after called the mortgagors and the Secretary of State for India in council on his behalf the Collector of Dacca here in after described as the said Secretary of State of the mortgagee of the third part, where as an application of the said wards in accordance with the provisions of clause (e) Section 6 of the said Court of wards act Bengal act ix of 1879 asd amended by Bengal act x of 1892 and E.B & A act III of 1907, The Government of Eastern Bengal and Assam declared in its letter no-428 dated the 5th september 1907 and orderd appended there to that the said wards was a disqualified proprietors and that it was expended in the public interest that his Estate should be managed by the Court of wards and where as in presence of the said declaration and in accordance with provisions of the said act, the said Court of wards has taken charge and possesions of all the properties moveable and immoveable of the said ward and where as the said Secretray of Estate has agreed to advance a loan of Rs. 14,00,000/00 Rupees, fourteen lakhs only with interest at the rate of third clause bellow on the mortgage of the properties moveable and immoveable specified in the schedule there to for the liquidation of the debts of the said ward and where as the said Court of wards has Sanctioned the said loan in its no-133 m/d dated 3rd of August 1908 has authorised and directed the said Commissioner of the Dacca Divission to execute the Indenture on its behalf name this present have been made in consideration  of the said loan and there of it is here by mutually agreed and declared by the said parties here to as follows.

1.             That the said Court of wards and the said ward for himself his heirs successors executors administrators and assigns do here by mortgage by way of simple mortgage unto the said Secretary of State his successors and assigns all the properties specified in the schedule hernes here to with all accessions accretions additions there to and improvements there in all rights and open dags and concerning then and arising out of them and with all arears of rents and rent decrees and other dues for or on account of the same and with all Usufruct  and assets there of due and here after to be due the whole being here in after reffered to as the said properties by  way of security for the payment of the said loan until the said loan with interest there on at the rate specified