ভূমি সংস্কার বোর্ড গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd জুন ২০২১

ভূমি সংস্কার বোর্ডের গঠন

 

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ১৭৬৫ সালের ১২  আগষ্ট মাত্র ২৬ লক্ষ টাকার বিনিময়ে মোগল সম্রাট দ্বিতীয় শাহ আলমের নিকট হতে বাংলা, বিহার ও উড়িষ্যার দেওয়ানি লাভ করে| দেওয়ানি ও রাজস্ব বিভাগ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার উদ্দেশ্যে ওয়ারেন হেস্টিংস ১৭৭২ সালের ১৩ আগষ্ট বোর্ড অব রেভিনিউ গঠন করেন এবং এর ধারাবাহিকতায় পাকিস্তান আমলেও বোর্ড অব রেভিনিউ বহাল থাকে।  বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭৩ সালে এর বিলুপ্তি ঘটে এবং ভূমি প্রশাসন ও ভূমি সংস্কার মন্ত্রণালয় গঠিত হয়| বিভিন্ন বিবর্তন ও পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে ১৯৮৭ সালে এর নামকরণ হয় ভূমি মন্ত্রণালয়।  ভূমি মন্ত্রণালয়ের পক্ষে মাঠ পর্যায়ের ভূমি প্রশাসন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পূর্ণরূপে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও তদারকি করা কঠিন হয়ে দাঁড়ালে ১৯৮১ সালের ১৩ নং আইন বলে বিলুপ্ত বোর্ড অব রেভিনিউ-এর আদলে ভূমি প্রশাসন বোর্ড গঠিত হয়|  মাঠ পর্যায়ের ভূমি প্রশাসন ও  আপিল মামলা একই সাথে পরিচালনা করা ভূমি প্রশাসন বোর্ডের পক্ষে দুরূহ হয়ে ওঠে।  ফলে এ বিষয়ে অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞগণের মতামতের ভিত্তিতে ১৯৮৯ সালে দুইটি অধ্যাদেশ বলে মাঠ পর্যায়ের আপিল মামলা নিষ্পত্তির লক্ষ্যে ‘ভূমি আপিল বোর্ড’ এবং  ভূমি প্রশাসন ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালনার উদ্দেশ্যে  ‘ভূমি সংস্কার বোর্ড’  গঠিত হয়| পরবর্তীকালে অধ্যাদেশ দুইটি  জাতীয় সংসদের অনুমোদন লাভের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ আইনে  পরিণত হয়। 

 

একজন চেয়ারম্যান (সরকারের সচিব) ও দুইজন সদস্য (সরকারের অতিরিক্ত সচিব) এর সমন্বয়ে ভূমি সংস্কার বোর্ড গঠিত। এছাড়াও বোর্ডকে সহযোগিতা, গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন এবং আইন, বিধি ও নির্বাহী আদেশ দ্বারা অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালনের জন্য ভূমি সংস্কার বোর্ডে তিনজন উপভূমি সংস্কার কমিশনার, ছয়জন সহকারী ভূমি সংস্কার কমিশনার, একজন হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা, একজন সহকারী প্রোগ্রামার এবং একজন সহকারী মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার কর্মরত আছেন। অধিকন্তু মাঠ পর্যায়ে আট বিভাগে আটজন উপভূমি সংস্কার কমিশনার কর্মরত রয়েছেন। 


Share with :

Facebook Facebook